নি:সঙ্গতা তোরে নিংশিঙ অয়া

FB_IMG_1596022174481

নি:সঙ্গতা তোরে নিংশিঙ অয়া
মি দূরেই দূরেয়েদে গিয়া ফৌঔরিগা
পথ-গাট লপুক-বন সাময়া টেঙারার বিতরেদে আটিয়া
হাদিতৌ বার যাউরিগা পৃথিবীর কক্ষপথেদে
ইমে আকখুলাগই!

পথেদে  যিতেগা যিতেগা
বন-বাগিচার গলিয়েদে
পারেঙ পারেঙ অয়া যিতারাগা কামজারি নিঙল বার
টেঙারার পাদদেশে নামিয়া আইতারা
উপজাতি নিঙল বেয়াপার হাদিৎ তোরে
কতি বিসারলু!

নি:সঙ্গতা
মিতে তোরে বিসারেয়া হাদি হাদিত
রাতিকার উপসাগর লালয়া
পৃথিবীর হৌমুর ফৌঅউরিগা
তেবঔ তোর বুকগর সাইবেরীয়ার ইঙ বউহানে
আনিয়া আহেসে মৌসুমীর দেহা
নাপেইলু!

তেবঔ তোর হুৱাংহুর ইন্চিক চিক পানিহানাত
রাতিকার তেরার হাকহান লামিয়া আয়া
জলকেলিল মত্ত অয়া আসি
তেবৌ মোর এগদে আর বুলন দিয়াও না-চাদিলা
কিন্তুমান নিংশিঙ অইস নি:সঙ্গতা
তোরে নিংশিঙ অয়া মোর ভাবনা এতা
কথা টটরতারা চিরদিন মিঙাল বার ফুলর সাদনে।

(‘চিংলাই হিংগালার য়ারি বার নি:সঙ্গতা’ কাব্যগ্রন্থত্ত )

আর কে ভোলা সিংহর কবিতা

20200729_172041

অভিমান
মাতের করিয়া ঠিস্ বৌহানরে ভানু ৷
মোর মিঙালে পালসি জীব বার মানু ৷৷
হমাদিস সাজারাঙে দিন রাতি মোরে ৷
মি নেইলেতে থাই তেই নিততিকা আধারে ৷৷
জ্বিগর সানে সওয়া মাতের পবন ৷
অভিমানে দিনে বয়া দেহর হপন ৷৷
মোর সানেতে পাঙ্কালপা মালেমেতে কইগ ?
মি বিনে এরাদিতেই মিকুপেই ঠইগ ৷৷
হুনিয়া মাতের সেঙ্ক  ডাঙরিয়া বেলি৷
উসিত নাকরিয়া তি লাগরতাহে কৌলি ৷৷
চেইক দেয়াতা সিংনা মোর তুল আয়া ৷
উরেসে সউ এগর ফিজেত্ উরেয়া ৷৷
হু হু করে লঙলেইগল বৌরাজা আহিল ৷
বৌহানর জারনহানে গাছউ নঙিল ৷৷
থুরথুরেই কাপিল মাটি বাড়ী ঘর ৷
ফিজেতহান নাহে ইল সুপ লর চর ৷৷
এফির উঠিল বেলি বলিল সিংনাত্ ৷
রইদহানর ফাপগল করের পাহাত্ ৷৷
খুল্ল হাবি সউগয় গারির ফিজেত্ ৷
জারে নারিয়া বেলির কান্থিপা লিচেত্ ৷৷
ডাহে ডাহে আতজোড়ে মাতের দ্বগরে ৷
” অইলগাহে প্রভু খানি কৃপা কর মোরে ৷৷
লিরি লিরি বৌউহানল আইহে বৌরাজা ৷
কঙালা মিঙালে বেলি এ সংসার সাজা ৷৷”
হুনিয়া সউ এগর কাকুতি মিনতি ৷
হারপেইলা আজি দ্বগয় মালেমর গতি ৷৷
বৌ বারো মিঙাল বিনা মালেম আধার ৷
দ্বগর বরে পালর জীবর সংসার ৷৷

 
হাৱন
কনাক বেলি এচিলাইতে
পলাপলি খেলেইরি ।
বৌহানরে ডাঙা ডাঙা
মেঘের হাদিত লুকেইরি ।।
হাগ এহানউ কোণআগদে
মাঠারকানি বুনিরি ।
হাতহান রঙর নানসামদিয়া
ফলেই ফলেই খৌদিরি ।।
হাৱন মাহার লপুক এগ
চিত্ পাকেয়া পরেসে।
বরণ এহান আয়া তারে
আদ্দেদেনাত থেঙসে  ।।
মুনিথকপা দিনএহানে
হুঙকারদিয়া গুজুরের।
পহরিগর পানিএতা
ডরে ডরে নিক্করের ।।
গুৱার গাছে চঙা এতায়
ডেনটেকুরি খেলতারা।
দিনএহানে গুজুরবতায়
ঠারা ঠারা আটতারা।।
আনিকায়তে লামলইরিগা
গাঙঘর এতার পথেদে।
বেলিরাজায় পলেয়া চার
হাগে থায়া হেরেদে।।
যৌবনফাসে জুনাকচিলা
য়ৌচাহানউ কমনাসে।
কলামেঘর টুমাহানে
তেইরে রাইহা উবাসে।।
তেরাএতাউ মাঙসিগা
বরণহানর ডরহানে।
আধারহানউ মেকসেঙসে
জিনজিনি ‘তার ঙালহানে।।

যৌবন

লেহাউ এগই ডাঙেইরিতা
মুক্সিদিয়া বৌহান।
পাকঠি এগয় দিলগাতা
আনিয়া এ পৌহান।।
মদল্লেইতে উঠিরিতা
ডিল ডিল  নিক্কা।
বছরহানাত আকখুরুমহে
দিরিগাতা জিল্কা।।
কপকপারা দলাগিদেই
কাপকলেইমা নাঙহান।
পাকদিরিতা দিনমাদানে
ফাকফাকেয়া গাঙহান।।
বুড়াকালে মালতীতে
অসে কিরউ   কেঙহান।
অটগিরাঙা জবা ইচের
থতাহানউ বেঙহান ।।
বয়া বয়া গুমটিপেয়া
দেহুরিতা হৌপন।
গাঙরঘরর ভিটা উগত
ফুলপাহেসি যৌবন।।

সুজিৎ সিংহ সুনা’র কবিতা কতোহান

FB_IMG_1596019888231ইমা উরে পেয়ার বানা

হাবিত্ত নুঙেই ইমার উরে থানি
গারগত দরিয়া লটকিয়া
ইমার উরহানাত বয়া থানি
ইমার উরে বয়া গুমে পরানি
হাবিত্ত নুঙেই ইমার উরে থানি

উরহানাত বয়া ইমার লগে গুজুরানি
ডাঙর অয়া ইমা তরে না’পাহুরানি
জরমর পিসে তরে আগে চিনেসু মি,
উহানলো অসত্ জগতে হাবিত্ত ডাঙর তি
মাত্ টাং নেয়া ইমা বুলিয়া ডাহৌরি
আহৌ আটহান হিন পাহুরিয়া
ইমা হারৌ অয়া কলকরৌরি।

আমি গাছ আকজারর ডেল দুগ অসি
ইমারাংত জিঙে বানা আর কুঙগৈ পাসি
ইমা বুলিয়া ডাকদিলে অউরী হারৌ
রাধারাণীরে ইমা নামাত্তারা
তেইরাং নেই কুনো হারৌ।

হারনেপেয়া গুজুরলু মি
ইমার উরহানাত বয়া,
মনে কুনো য়ারৌ নাকরিস ইমা,
হারনাপাউরী সৌ’গ বুলিয়া।

যত্নর পাহিয়া

মোর বানার কালা পাহিয়া আগরে পালেছিলু মোর মনে।
সেলকম্ কলা খওয়া খওয়া থছিলু পিন্জুরার ভিতরে।।
সময় আহান দুরেই দেশে গিয়া পাছিলু বানার পাহিয়ারে।
সারাদিন হান করলু যতন কুনো হিন নাদিয়া থছিলু মি মনে।।
অমাটিক্ বানা নুংশি কতি নিয়াম যতন তা নুঙেই না পেইলো।
পিন্জুরার ভিতরে থায়া কুম্বাকা বনে ফরদানি তা চেইলো।।
নুংশি নুংশি এলা দিয়া থার তা পিন্জুরার ভিতরে খেলেয়া।
তার এলা হুনিয়া বিভুর অয়া আছিলু মি হারৌ অয়া।
খালকরলু আকদিন য়াকরলো থানা পাহুরলো তার বন।
পাহুরেসু তার হিন হারনাপাসু  না চিনেসু পাহিয়ার মন।।
বানাপেয়া খুলেইলু মি পিন্জুরার দুওয়ার বিশ্বাস করিয়া।
গেলগা ফরদিয়া বন বিছারেয়া হাবিরে আধারে থয়া।।
ফরদিলো আধারর বনে মন পিন্জুরার দুওয়ার ভাগিয়া।
নীলুওয়া আকাশে ফরদিলো হুরকাং কালা যত্নর পাহিয়া।।
থাইল কোণ আগদে পরিয়া খালি পিন্জুরা আদর না পেয়া।
আহির পানি পুছে পুছে কাঁদিয়া হাবি আছি কাঁদাত বয়া।।
বানার কালা পাহিয়া ফরদিলো দুরেই বনে পাখহানি মেলিয়া।
উতা দুঃখই আজি মোর আহির পানি বাহের গুলাহান অয়া।।

কুঙগদে কুরাং যিতুগা মি

মি কুঙগদে কুরাং যিতুগা ?

হাবিগদে পাউরি হুদ্দা বাধা !
উত্তরে দেহৌরি পানি, যেপেইত্ মাছ হাতুরতারা।
মিতে হাতুরানি নুৱারৌরি,
উপেইত গেলেগা মি বুরিয়া মরতৌ।
মি সুপ বুরানি নামনাউরি।

মুঙেদে চেইতে দেহৌরি হাবি টেঙারা!
যেপেইত্ আসে হুদ্দা গাছর রাজত্ব,
উপেইত্ হমেয়া পথ পাহুরিয়া –
থানা লাগতৈ জঙ্গলে বুলিয়া।
মি জঙ্গলে বুলানির কা জরম নাসু?
না যিতৌ মি সুপ উগদে।

পিঠি বারাদে অক্সিজেন নেই!
উবেদে হুদ্দা ঘৃণা বার অভিশাপ ফরদের।
মি নিংশা তে কিসাদে কারতৌ?
অক্সিজেন লনার ক্ষমতা মরাং নেই,
উগদে গেলেগা মি ঘৃণ্য বার অভিশপ্ত অইতৌ।
উহানলো মি উগদেউ না-যিতৌগা?

দক্ষিণে দেহৌরি সমাধিসৌধ নরক হান!
উবায়া থানা পারানির ইঞ্চি আহানৌ খালি নেই,
উবারার মাটিত মানু প্রায় গুমিয়া আসি।
গুমজিলে তে কিসাদে মি আকাশ দেখতৌ?
মি আকাশ নাদেহিয়া থানা তে নারতৌ।

উতার চেয়ে মি পাহিয়া অয়া আকাশে ফরদিতৌ,
হাগহানাত্ গিয়া জুনাকর লগে মি থাইতৌ।

জীবন যাত্রার দশা

মুকু নেই! লিখনিগ’ল ইকরাত
লেপইলু মোর জনম।
কিতা লেখতু, কিসাদে লেখতু ? খংকুল নেই জনম এহানাত!
ইকরাত বয়া, দেহৌরি পারাপার অসে সরাহানাত
কল্পুক সৌৱয়া খলকিয়া আহের। মোর নিংশিং!
হাদি মেরাকে দেহৌরি ডাঙর বিট্টি আগ’
মোর উবেদে চেয়া রুসিয়া আহের।
তান্জা চেয়া দিন মেঘালা করিয়া,
দ্বৌ জিলকেয়া কালা বৌ-বরন আনের।
খেলতাম্ উহানাত থকেয়া গুমর মেরাকে
দেহৌরি মর হপন,
পানির সাদে মুকশি দিয়া দিয়া বাহিয়া যারগা।
উতা হাবি ডিগল বাহা আগত
কল্ঠ্ররং লাগেয়া,
দারৌর সাদে খমকরানি নিয়াম চিলসে!
মেঘালা দিনে পারাপার অসে গুলাহানাত।
খানি পিসে দেহৌরি জার্মানির সাদে,
বাহিয়া আহের মোর নিংশিং।
মুকু নেই ফানটেন্ গলো আরতে কতি ইকরে পারতৌ,
চে হানৌ তেঙনি অকরলো
লিখনিগৌ আর আগুৱানি হিনপেইলো।
তবুও না এরতৌ, সেংকরে মুকু দালিয়া জীবন-
যাত্রার কদম কারে কারে ইকরানি না খামৈতৌ।।

পৃথিবী ইমার প্রকৃতির এহান

পৃথিবী ইমার প্রকৃতি এহান চেইতে কতি হবা,
পাহিয়া কিচিমিচি রহিয়া, নুকুলতারা বিয়ান ফুৱইলে।
লিরি লিরি বৌ দের রাতি ফুৱইলে।।
ফুলে ফুলর কুরি সাতনি অকরের।
মুঙেদেত্ত বেলি  নুকুলিয়া আহের।।

পৃথিবী ইমার প্রকৃতি এহান চেইতে কতি হবা।
টেঙারার হাদিয়েদেত্ত জর-জরি হংকরের।
লতায় পাতায় বেলির পহরে, মুকশি মুকশি দের।
বাগান বাগানে নুংশি ফুল, সাতয়া মনহান মৌকরের।।
ঔ পৃথিবী ইমার প্রকৃতি এহান,
জ্ঞানী জীবর অজ্ঞানর কারণে
মিমুত্ অইতৈ আকদিন!

দেহানি না-মনেইলেউ?
দেহাত পরেসি আমি উসাদে দিন।
দিন আহান এরে প্রকৃতির লগে নাথাই তাঙাই,
আমার বিবেক বুদ্ধি হাবি মাঙকর তাঙাই।
দিন আহান গরে বিতরেত্ত, নুকুলে নারিয়া থাইতাঙাই।
ইনচিক্ চিক্ বনর সাদে,
জীব জন্তু হাবি আমার ফামে
তাপ্ক তাপ্ক আমার গর দুৱার হাবি কালকরতাই।
চারিবারা অইতৈ হুদ্দা গাছ গাছরা বার জন্তুর গর।
দিন আহান পারা বেলানিরকা কুনো খালি জাগা নাপেই তাঙাই?

দিন আহান চারিবারা হুদ্দা লতা পাতায় বেরেয়া দেখ তাঙাই!
এগদে হৌগদে হুনতাঙাই জন্তুর রৌ
পাহিয়া পাখ্ মেলিয়া, পানিত মাছ খেলিয়া, হুনতাঙাই গরে বাঘর রৌ।
দিন আহান মানু হাবির পাংকাল নেয়ইতৈ,
বিদ্যুৎ নিকালানির ক্ষমতাউ নাথাইতৈ, ল্যাম্প পষ্টে পহর নেয়ইতৈ।

আমারাং থাইতৈ হুদ্দা আকহান ভরসা,
সেন্দা অইলে ঝিন্-ঝিনির পহরর আশা।
উবাকা মনে পরতৈ অতীতর নুঙেইপা নিংশিং।
ঔ দিন হাবিয়ে য়ারৌ, লোভ, অহংকার বার বানা পাহুরতাঙাই।
উসাদে করিয়া হাবি এরে প্রকৃতি এহানাত্ত মুক্তি পেইতাঙাই?
দিন আহান এরে প্রকৃতির লগে আমি নাথাই তাঙাই !